সীমান্ত পার করে সিরিয়ার উত্তরাংশে প্রবেশ করেছে তুরস্কের বাহিনী। অঞ্চলটি কুর্দি যোদ্ধা-মুক্ত করার অভিযানের অংশ হিসেবে সিরিয়ায় প্রবেশ করেছে তারা। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে সিরিয়ার ভেতরে ৩০ কি.মি. পর্যন্ত কুর্দি যোদ্ধাদের দখল থেকে নিরাপদ অঞ্চলে পরিণত করা। তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম এ কথা জানিয়েছেন। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।
খবরে বলা হয়, শনিবার থেকে আফরিন অঞ্চলে কুর্দি ওয়াইপিজি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক। এতে করে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দেশটির স¤পর্কের অবনতি ঘটতে পারে।

কেননা, আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ওয়াইপিজি যোদ্ধাদের সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র। এদিকে, আফরিন অঞ্চলে তুরস্কের সেনাদের প্রবেশের বিরোধিতা করেছে কুর্দি যোদ্ধারাস। তাদের ভাষ্য, তারা তুরস্কের বোমা ও গোলা হামলা নস্যাৎ করে দিয়েছে। পাশাপাশি তুরস্কের বাহিনীকে পিছু হটতেও বাধ্য করেছে। অন্যদিকে, তুরস্কের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, তারা ইতিমধ্যে কুর্দি মিলিশিয়াদের দখলে থাকা ১৫৩ টি ঘাটি ধংস করে দিয়েছে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   সিরিয়ায় ৩০ দিনের অস্ত্রবিরতির কথা বিবেচনা করছে নিরাপত্তা পরিষদ

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × 2 =