সীমান্ত সন্ত্রাস বন্ধ না হলে পাকিস্তানের সঙ্গে ক্রিকেটীয় সম্পর্ক পুনঃস্থাপন নয় বলে স্পস্ট জানিয়ে দিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। নিয়ন্ত্রণ রেখায় নিয়মিত গুলি বিনিময়ের কারণে পার্শ্ববর্তী দেশটির সঙ্গে ক্রিকেট সিরিজ মাঠে গড়ানোর সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছেন তিনি। স্থানীয় টাইমস অব ইন্ডিয়া পত্রিকায় আজ প্রকাশিত এক রিপোর্টে এ কথা বলা হয়েছে।
ভারতের পররাষ্ট্র সংক্রান্ত এক পরামর্শক কমিটির বৈঠকে স্বরাজ বলেন, ‘আন্তঃসীমান্তে বিপুল পরিমাণ গোলাগুলির অব্যাহত থাকায় এমন ক্রিকেট সিরিজ আয়োজন বেমানান।’ দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা প্রশমনে দীর্ঘদিন যাবত স্থগিত থাকা ক্রিকেটীয় সম্পর্ক পুনঃস্থাপন একটা বিকল্প হতে পারে কিনাÑ এমন প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।
রাজনৈতিক উত্তেজনার কারণে দীর্ঘদিন যাবত প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ দু’টি কোন দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট সিরিজ খেলছে না। সর্বশেষ ২০১২-১৩ মৌসুমে সংক্ষিপ্ত সিরিজ খেলতে ভারত সফর করেছিল পাকিস্তান ক্রিকেট দল। দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে ভারতীয় দল সর্বশেষ পাকিস্তান সফর করেছিল ২০০৫-০৬ মৌসুমে। দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হলেও ভারত সে চুক্তির প্রতি সম্মান দেখায়নি।
আন্তঃসীমান্ত সন্ত্রাসসহ সীমান্ত উত্তেজনা বিষয়ে ভারতীয় মন্ত্রী বলেন, ২০১৭ সালে আটশ’বার আন্তঃসীমান্তে সন্ত্রাস হয়েছে।
চুক্তি অনুযায়ী সিরিজ না খেলায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) বিরুদ্ধে ৭০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে গত নভেম্বরে আইনি নোটিস পাঠিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। খেলাটির স্বার্থে এবং আর্থিক কারণেই দুই দেশের রাজনৈতিক দূরত্ব কমিয়ে এনে ইন্দো-পাক ক্রিকেট আয়োজনে গুরুত্বারোপ করেছেন পিসিবি চেয়ারম্যান নাজাম শেঠি।
দ্য উইক পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে শেঠি বলেন, ‘দুই দেশের একে অপরের বিপক্ষে খেলা অবশ্যই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ্যাশেজ সিরিজের চেয়েও ইন্দো-পাক সিরিজ অনেক বেশি আকর্ষণীয় তাতে কোন সন্দেহ নেই। দর্শক বিবেচনা এবং দুই বোর্ডের আর্থিক উন্নতির জন্যও এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

(বাসস)

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   ভারতের উচিত চীনের সঙ্গে বন্ধুত্ব স্থাপন আর পাকিস্তানকে শ্রদ্ধা করা চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের সম্পাদকীয়

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen − 4 =