স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, উৎসাহ ও অনুপ্রেরণার পাশাপাশি সুযোগ তৈরী করে দিলে তরুণ প্রজন্ম ভবিষ্যতে সক্ষমতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারবে।
তিনি শনিবার ঢাকার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ আয়োজিত আউটস্ট্যান্ডিং ক্যামব্রিজ লার্নার এ্যাওয়ার্ডস শীর্ষক সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
স্পিকার বলেন, ‘মেধাবী তরুণরাই ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দিবে। আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ মেধার স্বাক্ষর রাখছে- জাতি হিসেবে এটা আমাদের গর্ব।’
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী পুরস্কারপ্রাপ্তদের ও তাদের অভিবাবক, শিক্ষক এবং প্রতিষ্ঠানের প্রশংসা করে বলেন, এ পুরস্কার অর্জন বাংলাদেশের জন্য এক অনন্য মাইলফলক। শিক্ষার্থীদের এ সাফল্য প্রমাণ করে বাংলাদেশ শিক্ষা ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, এ সাফল্য একটি সিড়ি যা বাংলাদেশকে পৌঁছে দিবে জ্ঞান নির্ভর বিশ্বে।
স্পিকার বলেন, বিশ্বায়নের প্রতিদ্বন্ধিতার যুগে জ্ঞান নির্ভর অর্থনীতি প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এক্ষেত্রে যোগ্যতা, অনুপ্রেরণা এবং কঠোর পরিশ্রমই পারে শিক্ষার্থীদের সফলতা নিশ্চিত করতে। এসময় তিনি ব্রিটিশ কাউন্সিলের সহযোগিতা ও সমর্থনের প্রশংসা করেন।
অনুষ্ঠানে অর্থনীতি, গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান, ইংরেজিসহ বিভিন্ন বিষয়ে সর্বোচ্চ ফলাফল অর্জনকারী ৫৮জন শিক্ষার্থীকে ’টপ ইন ওয়াল্ড’ ও ‘টপ ইন কান্ট্রি’ পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা স্পিকারের কাছ থেকে সনদ গ্রহণ করেন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্রিটিশ কাউন্সিলের এক্সামিনেশন ডাইরেক্টার এনড্রিয়ানি পাপাপেরিসিলেয়াস। বক্তব্য দেন পশ্চিম ভারত ও বৃহত্তর দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ম্যানেজার সত্যজিত সরকার ও ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ এর কান্ট্রি ডিরেক্টর বারবারা উইকহ্যাম।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   মধুসূদন বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

fifteen + 13 =