নানা কারণে একসময়ের আলোচিত মডেল ও অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপির ডিভোর্স হয়ে গেছে বলে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। খবরটি এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসটি দেখে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। তবে এর কয়েকদিন আগে ‘ডিভোর্স’ বিষয়ে বড় একটি পোস্ট শেয়ার করেন। যেখানে তিনি বলেন, দ্বীনদার মেয়েদের ক্ষেত্রেও ডিভোর্স হতে পারে। হ্যাপি তার স্ট্যাটাসে লেখেন, আমার ডিভোর্স হয়েছে গত মাসে (সেপ্টেম্বর)। আমি প্রচণ্ড শকড খেয়েছিলাম তখন। যার ফলে আমি প্রায় দুই মাসের মতো স্মৃতি হারিয়ে ফেলি। আমার ডিভোর্সের কথাও আমি ভুলে গিয়েছিলাম। আজকে রাতেই মনে করিয়ে দেয়া হলো। যাই হোক, জানলাম। সবকিছু নতুন করে আবার সাজাব ইনশাআল্লাহ! তিনি বলেন, আমার জন্য দোয়া করবেন সবাই, আল্লাহ পাক যেন সবর করার তৌফিক দান করেন। তায়াক্কালতু আলাল্লাহ। দুই লাখ ৬৫ হাজারের বেশি ফলোয়ার থাকার হ্যাপির নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে এমন স্ট্যাটাস দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। এরপর ঠিক ৩০ মিনিট পর হ্যাপি তার স্ট্যাটাসটি সরিয়ে ফেলেন। তবে এই ঘটনার পর আরেকটি স্ট্যাটাস দিয়ে হ্যাপি জানান, তার ফেসবুক আইডিটি হ্যাক হয়েছিল। তবে কে বা কারা হ্যাক করে সে বিষয়ে কিছু জানাননি তিনি। ফলে এ নিয়েও ভার্চুয়াল জগতে চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা। প্রসঙ্গত, একসময়ের আলোচিত মডেল ও অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপি বরাবরই আলোচনায় থেকেছেন নানা মন্তব্য আর কর্মকান্ডের মাধ্যমে। এখনোও তিনি সমান তালে আলোচনায় রয়েছেন। তবে এখনকার কৌশলটা তার একেবারেই ভিন্ন। প্রকাশ্যে নয়, ভার্চুয়াল জগতে বেশি সক্রিয়।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × two =