চুরি যাওয়া একটি ভদকার বোতল পাওয়া গেছে, যা কিনা ভদকার দুনিয়ায় সবচেয়ে দামি বলে ভাবা হচ্ছে। বোতলটি খালি অবস্থায় পাওয়া গেছে বাড়ি তৈরির স্থানে। ড্যানিশ পুলিশ সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

আজ শনিবার বিবিসি অনলাইনের খবরে জানা যায়, ভদকার বোতলটি সোনা-রুপায় তৈরি। রাজ ইগল আকৃতির বোতলের মুখটি হীরকখচিত। ভদকার বোতলটির মূল্য ১৩ লাখ ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১০ কোটি ৭৬ লাখ ২২ হাজার টাকা।

কড়া মদের মধ্যে রাশিয়ার ভদকা বিশ্বে বেশ জনপ্রিয়। গত মঙ্গলবার অতি মূল্যবান এই ভদকার বোতল ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনে ক্যাফে ৩৩ নামের একটি বার থেকে চুরি যায়। চোর ভদকা খেয়ে বোতলটা ফেলে গেছে। ক্লোজড সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা মুখোশ পরা এক চোরের উপস্থিতি ধরা পড়ে। টর্চের আলোয় ওই বোতলটি খুঁজে নেয় সে।

বোতলটি অক্ষত অবস্থায় একটি নির্মাণাধীন ভবনের স্থান থেকে পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কোপেনহেগেন পুলিশের মুখপাত্র রিয়াদ টুবা সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, ‘বোতলটি খালি অবস্থায় পাওয়া গেছে। বোতলে থাকা ভদকার কী হয়েছে, জানি না।’

তবে মদ না থাকলেও বোতলটির দাম একই থাকবে বলে জানিয়েছেন বারের মালিক ব্রায়ান ইংবার্জ। তিনি বলেন, দুর্ভাগ্যক্রমে বোতলটি এখন খালি। নির্মাণাধীন ভবনের শ্রমিকেরা বোতলটি দেখতে পান। তিনি জানান, এই বোতলে যে ভদকা ছিল, সেটা তাঁর কাছে আরও আছে। খুঁজে পাওয়া বোতলটিতে তা ভরে আবার তা বারে রাখা হবে। এমন বোতল একটিই তাঁর কাছে আছে। এটি তিনি লাটভিয়াভিত্তিক ডার্টজ মোটর কোম্পানির কাছ থেকে ধার এনেছেন। ছয় মাস ধরে এটি তাঁর কাছে রয়েছে।

বলা হচ্ছে, রাশিয়ার বিলাসবহুল গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি রুশো-বাল্টিক প্রতিষ্ঠানের শতবার্ষিকী উৎসব পালনকে স্মরণীয় করে রাখতে এটি তৈরি করেছে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   রাখাইনে জাতিসংঘের ত্রাণ কার্যক্রমে রাজি মিয়ানমার

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

sixteen + sixteen =