মিরপুর টেস্টে প্রথম দিনে ব্যাটিংয়ের চিত্রটা দ্বিতীয় দিনের শুরুতেও পাল্টাতে পারেনি বাংলাদেশ। ৪ উইকেটে ৫৬ রান নিয়ে প্রথম দিন শেষ করেছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ ও লিটন দাস। আজ সকালের সেশনে দুজন আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে শুরু করলেও তাঁদের জুটি টিকেছে মাত্র পাঁচ ওভার। সুরঙ্গা লাকমলের করা বেশ বাইরের বল অযথাই খেলতে গিয়ে স্টাম্পে টেনে আনেন লিটন। এরপর মিরাজ (৩৮*) এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে অসহায় চোখে দেখেছেন সতীর্থদের আসা–যাওয়ার মিছিল!

প্রথম দিনে ৪ উইকেটে ৫৬ রান তুলতে ২২ ওভার খেলেছিল বাংলাদেশ। আজ দ্বিতীয় দিনে তাদের ইনিংস টিকেছে মাত্র ২৩.৪ ওভার। মাত্র ৫৪ রানেই পড়েছে শেষ ৬ উইকেট। অবিশ্বাস্য ব্যাপার হলো, এর মধ্যে শেষ ৫ উইকেট পড়েছে মাত্র ৩ রানের ব্যবধানে! আত্মহননের এই মিছিলে মাত্র ১১০ রানেই গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। এতে প্রথম ইনিংসেই ১১২ রানের লিড পেয়েছে শ্রীলঙ্কা।

 শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টেস্টে এটা বাংলাদেশের সর্বনিম্ন রানের ইনিংস। দেশের মাটিতে প্রায় ১০ বছর পর ১২০ রানের নিচে অলআউট হলো স্বাগতিকেরা। এ জন্য ব্যাটসম্যানদের দায় এড়ানোর উপায় নেই। সুরঙ্গা লাকমলের অফ স্টাম্পের বাইরে করা নিখুঁত লেন্থের ডেলিভারি স্টাম্পে টেনে আনেন লিটন (২৫)। স্কয়ার কাটের চেষ্টা করলেও কোনো ফুটওয়ার্ক ছিল না। ষষ্ঠ উইকেটে ৩৪ রানের জুটি গড়ে এখান থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন মিরাজ–মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু ৪৩তম ওভারে আকিলা ধনঞ্জয়ার ভেতরে ঢোকা বল ড্রাইভ করতে গিয়ে বোল্ড হন বাংলাদেশ অধিনায়ক। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে এটাই সর্বোচ্চ রানের জুটি। দলের স্কোর তখন ৬ উইকেটে ১০৭।

মাহমুদউল্লাহকে ফিরিয়ে টেস্টে নিজের প্রথম উইকেটের দেখা পান অভিষিক্ত ধনঞ্জয়া। কিন্তু কে জানত ওই ওভারেই সাব্বির রহমান এ স্পিনারকে দ্বিতীয় উইকেট উপহার দেবেন! অফ স্টাম্পের বাইরে ঝুলিয়ে ছাড়া ডেলিভারিটি ড্রাইভ করেছিলেন সাব্বির। বল তাঁর ব্যাটের কানায় লেগে মিড উইকেটে দিনেশ চান্ডিমালের হাতে জমা পড়ে। বিপদের মুহূর্তে তাঁর এ ধরণের শট খেলার কোনো দরকার ছিল না।

আরও পড়ুনঃ   হাথুরুর মুখে হাসি ফোটালেন পেরেরা

ধনঞ্জয়া নিজের পরের ওভারে ফিরেই বাংলাদেশের ইনিংসের লেজ গুটিয়ে দেওয়ার কাজ শুরু করেন। ৪৫তম ওভারের দ্বিতীয় বলেই তালুবন্দী করেন রাজ্জাককে। পরের ওভারে তাইজুল ও মোস্তাফিজকে ফিরিয়ে লেজ গুটিয়ে দেওয়ার আনুষ্ঠানিকতাটুকু সেরেছেন দিলরুয়ান পেরেরা। তাইজুল অবশ্য রানআউট হয়েছেন। মোস্তাফিজ এলবিডব্লিউয়ের শিকার। শ্রীলঙ্কার হয়ে ৩টি করে উইকেট ধনঞ্জয়া ও সুরঙ্গা লাকমলের।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

ten − 9 =